টঙ্গীতে কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিলো ছাত্রলীগ

এবার ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। কিন্তু করোনা আতঙ্কে এই চলতি মৌসুমের আগাম ইরি-বোরো ধানকাটায় শ্রমিক সঙ্কট দেখা দিয়েছে। এ অবস্থায় শ্রমিক সঙ্কটে থাকা এলাকাগুলোতে ধান কেটে কৃষককে সহায়তা করছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। একইসঙ্গে খাদ্য সংকটে থাকা অসহায় মানুষের বাড়িতে বাড়িতে খাদ্য সহায়তা তুলে দিচ্ছে সংগঠনটি।

কৃষক বাবুল মাতব্বর লোক না পেয়ে পাকা ধান কাটতে পারছিলেন না। এদিকে কালবৈশাখীর আশঙ্কা, ইতিমধ্যে ধান পেকে শুয়ে পড়ছে এবং বিলেও পানি উঠতে শুরু করছে। এই খবর পেয়ে সেখানে ছুটে যান টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোশিউর রহমান সরকার বাবুর নেতৃত্বে ৪০ জন নেতাকর্মী।

সোমবার (২০ এপ্রিল) দিনভর গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ৫০ নং ওয়ার্ডের গাজীপুরায় বিলে বর্গা চাষী বাবুল মাতব্বরের ২ বিঘা জমির ধান কেটে দেন তারা।

টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোশিউর রহমান সরকার বাবুর নেতৃত্বে ৪০ জন নেতাকর্মী ধান কাটার এ কাজে অংশ নেন। ধান কাটা শেষে নেতাকর্মীরা কৃষক বাবুল মাতব্বরের বাড়িতে তা পৌঁছে দেন।

টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোশিউর রহমান সরকার বাবু বলেন, ‘কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নির্দেশক্রমে আমরা কৃষকের পাশে এসে দাঁড়িয়েছি। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নির্দেশ দিয়েছে কৃষকদের পাশে থাকতে। ছাত্রলীগ যেকোনও মানবিক সংকটে সাধারণ মানুষের পাশে থাকে। স্থানীয়দের মাধ্যমে শ্রমিক সংকটের খবর পেয়ে সেখানে কাঁচি-মাথাল নিয়ে হাজির হই।’

তিনি আরো বলেন, ‘যেকোন দুর্যোগ, ক্রান্তিলগ্নে সাধারণ মানুষ ছাত্রলীগকে পাশে পেয়েছে। এবারও করোনা মোকাবিলায় জনগণ ও বোরো মৌসুমে কৃষকদের পাশে থেকে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আজ ২ বিঘা জমির ধান কেটে কৃষকের বাড়িতে পৌছে দিয়েছি। আমাদের এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।’

কৃষক বাবুল মাতব্বর বলেন, ‘শ্রমিক সঙ্কটে আমার ২ বিঘা জমির ধান কাটতে পারছিলাম না। দিশেহারা হয়ে পড়েছিলাম। পরে ছাত্রলীগকে বিষয়টা অবহিত করেছিলাম, সাথে সাথেই তারা এগিয়ে এসেছে। বাবু ভাই ও তার কর্মীরা বিনা পারিশ্রমিকে জমির ধান কেটে ঘরে তুলে দিয়েছে। খুব ভালো লাগছে, তাদের কাছে আমি চিরকৃতজ্ঞ হয়ে রইলাম।’

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *